রোমান্টিক_বুড়ো_বর #পর্ব_৭ #মোহাম্মদ_আবদুল্লাহ

0
503

#রোমান্টিক_বুড়ো_বর
#পর্ব_৭
#মোহাম্মদ_আবদুল্লাহ

আমি: দেখুন আমার মনে হয় আপনি আজ আপনার মধ্যে নেই,
তাই এসব বলছেন 😨😨😨
চলুন আপনাকে খেতে দি
(এই বলে আমি যেই যেতে চাইলাম উনি আমার হাত চেপে ধরলেন।)
,
আমি:কি করছেন কি ছাড়ুন আমাকে।
,
পারভেজ: প্লিজ তুলি আমি বাবা হতে চাই ,
,
আমি: পাগল হয়ে গেছেন আপনি ,কি সব বলছেন।
,
পারভেজ:হে আমি পাগল হয়ে গেছি,
প্লিজ তুলি ,
(এই বলে উনি আমাকে আরো জোরে চেপে ধরলেন উনার বাহু দিয়ে)
,
আমি:কি করছেন টা কি, আমি ব্যথা পাচ্ছি তো।
(কিন্তু উনি আমার কোনো কথা বা বাঁধা মানছেন না ,
আরো কাছে আসছেন ,
তাই আমি উনাকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিয়ে—-
আমি: দেখুন আপনি বলেছেন আমার ইচ্ছা ছাড়া কখনও আপনি আমার উপর কোনো প্রকার জোরাজোরি করবেন না,
তাহলে , এখন কেনো এমন করছেন।
,
পারভেজ:😡 হে বলেছি কিন্তূ তোমার কিসের এতো অহংকার,
আর আমি কোন দিক দিয়ে তোমাকে কম দিচ্ছি বলো,
আর যদি বলো আমার বয়স বেশি,
তাহলে বিয়ে কেনো করেছো ।
,
আমি: দেখুন আমি তা বলতে চাইনি😕
,
পারভেজ:থাক আর বলতে হবে না 😡
আজকের পর থেকে তুমিই নিজে যদি আমাকে তোমার কাছে না ডাকো তাহলে আমি কখনোই আসবো না ।
তুমি কি মনে করো নিজেকে তা আমি জানি না ,
কিন্তু আজকের পর থেকে আমি আর নিজে থেকে তোমার কাছে নিজেকে ধরা দেবে না
(এই বলে উনি চলে গেলেন ।
আর আমি ভাবছি সত্যিই তো আমি কেনো এমন করলাম ,
আমি কি উনাকে একটুও ভালোবাসি নি এই কয়েকদিনে।
আর উনার অধিকার আছে আমার উপর ,
আচ্ছা উনিকি আমায় আর ভালোবাসবে না,
নাকি চলে যাবে ওই শুভা ডাইনির কাছে ।
নাহ আর আমি ভাবতে পারছি না😥😢😢😥😥😥)
,
,
,
,
ওই ঘটনার পর ,
ইদানিং পারভেজ আমার সাথে প্রয়োজন ছাড়া কথা বলে না ।
সব সময় আমাকে এড়িয়ে চলে।
বাসায় ঠিক সময়ে আসে না ,
আর বেলি ফুলের মালা 🌸 ও আনে না,🥺
বিভিন্ন অযুহাত দিয়ে খাবার ও ঠিক মতো খায় না।
সব সময় আমাকে এড়িয়ে চলার চেষ্টা করে ,
এভাবে আর কতদিন যাবে আমি ঠিক জানি না।
কিন্তু এই কয়দিনে এটা বুঝে গেছি আমার #রোমান্টিক বুড়ো 😜 বর টাকে আমি অনেক ভালোবাসে ফেলেছি।
,
কিন্তু আমি বলি কি করে উনাকে ,
আমার ও একটা পুতুল চাই ।
,
কিন্তু খাটাস টাকে কিভাবে বলি আমার ও উনার ভালোবাসা চাই ,
নাহ আজ বলেই ফেলবো ।
,
,
বিকেলে ঘর গোছাচ্ছি ,
আজ সন্ধ্যা হলে সেজে বসে থাকবো,
আমার দুষ্টু মিস্টি#রোমান্টিক বুড়ো 😜 বর এর জন্য।
,
,
হঠাৎ কলিং বেল বেজে উঠলো ,
,
আমি:এই অ সময়ে কে আসলো আবার,
গিয়ে দরজা খুলে দিলাম।
,
দরজা খুলে অবাক,
আমার ছোট ননদ নিসু এসেছে ,
কিন্তু ওকে দেখে স্বাভাবিক মনে হচ্ছে না।
চোখ দেখলেই বোঝা যাচ্ছে অনেক কেঁদেছে,
তাই আমি ওকে ধরে ভিতরে এনে বসাতে চাইলে আমার হাত জারি দিয়ে সরিয়ে ঘরের দিকে চলে গেলো
আমি:নিসু কি হয়েছে কি 🙁 তোমাকে দেখতে এমন লাগছে কেনো।
,
নিসু: চুপ😡😡
,
,
আমি: কিছু তো বলো হঠাৎ করে এখানে আসলে কেনো ? কোনো সমস্যা?
,
নিসু: হঠাৎ করে মানে😠😠, আমার বাড়ি আমি যখন খুশি আসবো তাতে তোমার কি ,
নাকি বিয়ে হয়ে গেছে বলে বাড়িটা আর আমার নেই। তোমার হয়ে গেছে।
,
আমি: আমি তেমন করে কিছু বলতে চাইনি নিসু😕।
,
নিসু: কেমন করে বলেছো তাহলে শুনি,
তুমি আমাকে প্রশ্ন করার কে শুনী,
যদি আমাদের বোনদের সহ্য নাই হয় তাহলে বলে দিও আসবো না তোমার বাসায় ।
আসুক ভাইয়া জিজ্ঞাসা করবো কে এতো সাহস দিলো তোমায়।
,
আমি:দেখো নিসু তুমি কিন্তু এখন বেশি করছো।
আমি তেমন কিছুই বলিনি।
,
নিসু:কি বলো নি তুমি ,
আসুক ভাইয়া বলবো সব😡
,
আমি:বলো তোমার ভাইয়া কে আমিও দেখবো উনি কি বলেন 😒।
,
নিসু:কি বললে তুমি—
,
(এরি মধ্যে পারভেজ চলে এলো ,
দরজা খোলা ছিলো তাই সোজা ঘরে ঢুকেছেন)
,
পারভেজ:কি হয়েছে কি নিসু,
তুই কাদছিস কেনো বোন।
,
নিসু: কাঁদবো না তো কি হাসবো নাকি বলো ভাইয়া।
,
পারভেজ:ইস এতো কথা না বলে আসল কথা বল ,
কে আমার বোনকে কাঁদিয়েছে ‌।
,
নিসু:জানো ভাইয়া আমি এখানে এসেছি বলে ভাবি বলে আমি এখন এখানে কেনো এসেছি,
তখন আমি বলেছি আমার বাড়ি আমি আসবো তাতে তোমার কি,
ভাইয়া আসলে আমি সব বলবো ।
তখন ভাবি বলে-
বলো তোমার ভাইয়া কে ,
দেখি তোমার ভাইয়া আমাকে কি করে।
আচ্ছা ভাইয়া এটা কি আমাদের বাসা নয় ,
নাকি বিয়ে হয়েছে বলে তোমার পর হয়েগেছি(কাঁদতে কাঁদতে)
,
পারভেজ: অবশ্যই এটা তোদের বাসা‌।
যখন খুশি আসবি আর যখন খুশি থাকবি ।
আর কার এতো বড় সাহস হয় যে আমার বোনকে কাঁদায়😠😠,
,
নিসু:কে আবার তোমার বউ😭😭😭(ন্যাকা কান্না করে )
,
আমি:আপনি আগে আমার কথা শুনুন———
,
থাসসসসস,থাসসসসস
,
পারভেজ:তোর এতো —-
,
চলবে……

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here