পর্ব_০৩ #অসমাপ্ত_প্রনয় #মিঃনাহিদ_হাসান

0
236

#পর্ব_০৩
#অসমাপ্ত_প্রনয়
#মিঃনাহিদ_হাসান

রাত আনুমানিক ১২টা কিন্তু কবীরের চোখে ঘুম আসতেছে না,সে ভাবতেছে সন্ধ্যার ঘটনা টা…

সাইফুল মাস্টার কে কবীর পিছনে থেকে ডাকছিলো,

চাচা গ্রামের মানুষ কেউ পাশে নাই,তো কী হইছে_আমি তো আছি, আসেন আমরা দুইজন হিয়া আপার জানাজা পড়াই..
অসহায় সাইফুল মাস্টার, হাউমাউ করে কাঁদতে লাগলো, গ্রামের কোন মানুষ আসলো না, তুমি আইছো, আল্লাহ তোমারে অনেক বড়ো মানুষ করুক।
তুমি দেবদূতের মতো আইছো বাবা…

সূর্য ডুবে গেছে, অন্ধকার চাদরের মত পৃথিবীকে ঢাকতে শুরু করছে, নির্জন নদীর পাশে দুইজন জানাজা পড়লো হিয়ার,কবর দিয়ে সাইফুল মাস্টার কে সাথে নিয়ে বাড়িতে চলে আসে কবীর.. সমাপ্তি হয়ে গেল জীবন নামের একটি অধ্যায়ের।

কিরে কবীর এত রাতে বাইরে দাড়িয়ে আসোস ক্যান?
কি হইছে মন খারাপ নাকি,দেখ আজকে মনে হয় আকাশেরও মন খারাপ, কেমন গোস্বা করছে, আকাশে একটা তারাও নাই আজকে…

ভাই আকাশের কি মন খারাপ হয়, আকাশ কী কান্না করতে পারে মানুষের মতো??

আমার কি মনে হয় জানোস কবীর, আকাশে যখন কালো মেঘ করে চারদিকে বিদ্যুৎ চমকায়, চারদিকে অন্ধকার হয়ে যায়, তখন মনে হয়_আকাশের মন খারাপ,, আর যখন বৃষ্টি হয় তখন মনে হয়,আকাশ কান্না করতেছে…

ঘরে চল, আকাশের অবস্থা ভালো না, আজকে মনে হয় ঝড় বৃষ্টি হইবো..।
বায়জিদ কবীরকে নিয়ে ঘরে যায়, আজকে সারারাত অনেক ঝড় বৃষ্টি হয়েছে, কবীর সকালে উঠে দেখে অনেক গাছের ডালপালা ভেঙ্গে গেছে…

বাড়ির পাশে, সাইফুল মাস্টারের আমবাগানে দুইটা পেঁচা থাকতো, কবীর প্রতিদিন মাদ্রাসা যাবার সময় দেখতো পেঁচা দুটো বসে আছে। আজকে দেখে আম গাছের নিচে একটা পেঁচা মরে পড়ে আছে, মনে হয় ঝড় বৃষ্টির সময় বাসা থেকে নিচে পড়ে গেছিলো,পরে বৃষ্টিতে ভিজে মারা গেছে। কবীর পেঁচাটাকে নিয়ে মাটি চাপা দিয়ে রাখলো, বাহিরে থাকলে পচে গন্ধ বের হতে পারে।

————————————————

কিছুদিন পরের কথা, কবীর লক্ষ করলো, যে পেঁচাটা মারা গেছে, তার সাথী পেঁচা টা প্রতিদিন বিকেলে যেখানে তাদের বাসা ছিল,সেই জায়গায় বসে চিল্লাচিল্লি
করে..। কবীর বাড়িতে এসে ভাইকে জিগ্গেস করলো,

আচ্ছা ভাই সাইফুল মাস্টারের আম বাগানে যে দুইটা পেঁচা থাকতো একটা পেঁচা মইরা গেছে, কিন্তু অন্য পেঁচাটা প্রতিদিন ওই জায়গায় বইসা বইসা চিল্লাচিল্লি করে ক্যান..

বুঝবি না ভাই,এইটা হলো ভালোবাসা,ভালোবাসলে কেউ কাউকে ছাড়া থাকতে পারে না,যার সাথী হারিয়ে যায় সেই বুঝে এর ব্যাথা, পেঁচা দুটো একসাথে থাকতো, ওদের জোড়া ভেঙ্গে গেছে, একজন ছেড়ে চলে গেছে,তাই আরেকজন বিরহে কাতর,তাই এমনে কান্না করে..

আচ্ছা ভাই ভালোবাসা বুঝি এমনই হয়, কাউকে ছাড়া কেউ থাকতে পারে না.. তাহলে হিয়া আপা ক্যান মইরা গেলো,সাকিব ভাই ক্যান আইলো না, সাকিব নাকি হিয়া আপারে ভালোবাসে, তাহলে এমন ক্যান করলো??

জানি না রে ভাই, ভালোবাসা সবার কাছে’সমান না,কেউ কেউ জীবনের শেষ পর্যন্ত থাকার জন্য_ ভালোবাসার মানুষটির জন্য জীবন দেয়, আবার কেউ মাঝ রাস্তায় ফালাইয়া চইলা যায়, এইসব চিন্তা তোর করা লাগবো না, গ্রামে তোর পড়াশোনা হবে না,ভাবছি তোরে ঢাকা পাঠামু।

এতো দূরে আমি একলা থাকতে পারমু না,
থাকতে পারবি তোরে মানুষের মতো মানুষ হইতে হবে,আর কোন কথা না, কালকে তুই ঢাকা যাবি..।

কবীর কোন কথা না বলে চলে গেলো,
নাফিসা তার পাশের বাড়ির বড়ো আপু, মীমের সাথে সাইফুল মাস্টারের বাড়িতে আইছে,স্যারের খবর নেওয়ার জন্য,এতো বড়ো একটা শোক কাটিয়ে উঠতে তার অনেক সময় লাগবে..

রাস্তায় কবীরের সাথে দেখা,কিরে নাফু এইখানে ক্যান?
স্যারকে দেখতে আইছিলাম,আর তোরে কতো বার বলছি, আমারে নাফু ডাকবি না…

হইছে হইছে আর ডাকমু না, কালকেই আমি ঢাকা চলে যামু,তখন আর তোরে কেউ জ্বালাতন করবো না..

ঢাকা কেন যাবি কী জন্য,
ভাই কইছে আমারে শহরে পড়াশোনা করাবো, গ্রামে নাকি পড়াশোনা হবে না…
শহরে পড়াশোনা করবি, বায়জিদ ভাইয়া এতো টাকা কোই পাইবো,জানোস তো শহরের পড়াশোনা করার কতো খরচ..।সেই তো ছোট একটা মুদির দোকান ছাড়া আর কিছুই নাই বায়জিদ ভাইয়ের…

জানি না কেমনে খরচ দিবো,আমি তো ভাইয়ের কথার উপর কিছু বলতে পারি না,দেখি কী হয় পড়ে দেখা যাইবো..আমি যাবার পর ভাইয়ের একটু খোঁজখবর রাখিস..

সাবধানে থাকিস, ঠিক মতো খাওয়া-দাওয়া করবি, পড়াশোনা করিস, ভাইয়ের স্বপ্ন পুরন কর,দোয়া রইলো..
আমি চলে গেলে আমারে কী মনে পড়বো না,যাক বেঁচে যাবি কেউ আর নাফু ডাকবো না,জ্বালাবো না..

তুই সবসময় একটু বেশি বোঝিস,যা তোর সাথে আর কথা নাই, নাফিসা চলে গেলো..

সত্যি মেয়েটার রহস্য আমি বুঝতে পারি না,রাগি চোখ গুলো ক্যান জানি আজকে_পানিতে টলমল করছে,
আরে আমি এতো ভাবছি ক্যান ওরে নিয়া, তাড়াতাড়ি বাসায় যাই, সবকিছু গোছগাছ করা লাগবো,কাল সকালে ট্রেন…

চলবে…….

যারা মনে করেন, এইটা পোড়ামন ২মুভির কপি, তাদের জন্য সম্পন্ন গল্পটায় পাশে থাকার অনুরোধ রইলো 🌺
খু*নের কাহিনী ওইরকম হলেও_পুরো গল্পটা বিভিন্ন ধরনের হবে 🥀

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here